মঙ্গলবার, ২৫ অক্টোবর, ২০১৬

ডিজিটাল সেবা ‘জিপে’ আনল গ্রামীণফোন

‘জিপে’ নামের মুঠোফোনভিত্তিক ডিজিটাল ওয়ালেট বা আর্থিক লেনদেন সেবা চালু করেছে গ্রামীণফোন
বিদ্যুৎ, গ্যাস, পানিসহ গৃহস্থালির সেবা বিল পরিশোধ (ইউটিলিটি বিল), ট্রেনের টিকিট কেনা, ব্যাংক হিসাব অথবা মোবিক্যাশ আউটলেট থেকে মুঠোফোনে টাকা ঢোকানোর মতো সেবা পাওয়া যাবে সেবাটির মাধ্যমে।

রাজধানীর গুলশানের একটি হোটেলে গতকাল সোমবার এক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে সেবাটি চালু করা হয়। অনুষ্ঠানে জানানো হয়, মোবিক্যাশ নামের আগে থেকে চালু থাকা ডিজিটাল ওয়ালেটভিত্তিক সেবাগুলোই আরও বিস্তৃত পরিসরে ও সহজে পাওয়া যাবে এই সেবায়। এ সময় গ্রামীণফোনের হেড অব মোবাইল ফিন্যান্সিয়াল সার্ভিসেস এরওয়ান গিলেবার্ট, প্রধান করপোরেট অ্যাফেয়ার্স কর্মকর্তা মাহমুদ হোসেনসহ সেবাদাতা বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান, সহযোগী ব্যাংকের প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।


অনুষ্ঠানে জানানো হয়, মোট ১৪টি সেবাদাতা প্রতিষ্ঠানের সেবা মিলবে জিপেতে। প্রতিষ্ঠানগুলো হলো বাংলাদেশ রেলওয়ে, বাংলাদেশ বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ড, ডিপিডিসি, ডেসকো, তিতাস গ্যাস, কর্ণফুলী গ্যাস, জালালাবাদ গ্যাস, বাখরাবাদ গ্যাস, চট্টগ্রাম ওয়াসা, খুলনা ওয়াসা, ডাচ্‌-বাংলা রকেট মোবাইল ব্যাংকিং, এবি ব্যাংক কোর ব্যাংকিং, ইসলামী ব্যাংক এমক্যাশ। গ্রামীণফোনের যেকোনো নম্বরে ফ্লেক্সিলোড করার পাশাপাশি একজন গ্রাহকের বাসার সবচেয়ে কাছে কোথায় মোবিক্যাশের আউটলেট আছে, সেটির তথ্যও জানা যাবে জিপেতে।

এসব সেবা পেতে গ্রাহক যেকোনো মোবিক্যাশ আউটলেট, নির্বাচিত সহযোগী ব্যাংকের হিসাব অথবা ইন্টারনেট ব্যাংকিংয়ের মাধ্যমে জিপে ওয়ালেটে টাকা ঢোকাতে পারবেন। এ ছাড়া যেকোনো গ্রামীণফোন সেন্টার থেকে জিপে ওয়ালেটে টাকা ঢোকানো যাবে।

চারটি উপায়ে জিপে ওয়ালেট গ্রাহকেরা ব্যবহার করতে পারবেন। *৭৭৭# নম্বর ডায়াল করে, গুগল প্লে স্টোর থেকে জিপে অ্যাপ ডাউনলোড করে সেবাটি ব্যবহার করা যাবে। আবার মুঠোফোনের খুদে বার্তায় ‘Reg’ লিখে ১২০০ নম্বরে পাঠিয়ে অথবা মোবিক্যাশ আউটলেটের মাধ্যমেও জিপে ওয়ালেট খোলা যাবে। গ্রামীণফোন গ্রাহকদের অ্যাপটি ব্যবহারে কোনো ইন্টারনেট ডেটা খরচ হবে না।

এই সেবা দেওয়ার জন্য গ্রামীণফোনের ট্রাস্টি হিসেবে কাজ করবে স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড ব্যাংক বাংলাদেশ।